Health

1 month ago

Foods increase stroke risk: স্ট্রোক এড়াতে কোন কোন খাবার তালিকা থেকে বাদ দেওয়াই ভালো? জানুন

Brain Stroke (File Picture)
Brain Stroke (File Picture)

 

দুরন্ত বার্তা ডিজিটাল ডেস্কঃ ইদানিং স্ট্রোকে মৃত্যু ব্যাপক আকার ধারণ করছে। আপনি হয়তো একজন মানুষকে দিব্যি চলতে ফিরতে দেখলেন। তারপর হয়তো পরের দিনই খবর পেলেন মানুষটি আর নেই। মৃত্যুর কারণ জানতে চাইলে শুনলেন স্ট্রোকে মারা গিয়েছেন। অর্থাৎ শরীর যখন অসার হয়ে যায়, তখনই বুঝতে হবে স্ট্রোক হচ্ছে।

তবে এই অসুখ কখন মানুষের শরীরে বাসা বাঁধবে তা আগে থেকে টের পাওয়া যায় না। এর ফলে হতে পারে বড়সড় রকমের বিপদ। এই স্ট্রোকের কারণ হতে পারে এখনকার ব্যস্ত জীবনের অসংযমী রুটিন, ভুলভাল খাওয়ার অভ্যাস বা নেশার আসক্তি। ধমনীতে রক্ত চলাচল বন্ধ হয়ে কখন যে মস্তিষ্ক সাড়া দেওয়া বন্ধ করে দেবে, তা ধরা খুব মুশকিল। চিকিৎসকেরা তাই বলেন, রোজের খাওয়াদাওয়ায় এমন কিছু রাখবেন না, যা স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়িয়ে দিতে পারে।

মনে রাখতে হবে এটি এক প্রাণঘাতী অসুখ। প্রতি বছর এই রোগে আক্রান্ত হয়ে অসংখ্য মানুষ প্রাণ হারান। আর যাঁরা এই অসুখের ফাঁদ কেটে বেরিয়েও আসেন, তাঁদের মধ্যেও বেশিরভাগের সঙ্গী হয় পক্ষাঘাত।

এখন প্রশ্ন হল, কী ভাবে এই মারণ রোগ প্রতিরোধ করা সম্ভব? চিকিৎসকেরা পরামর্শ দিচ্ছেন, এমন কিছু খাবার আমরা প্রায় রোজ খাচ্ছি, যা স্ট্রোক কিংবা হৃদরোগের মতো অসুখের কারণ হয়ে উঠছে।

কোন কোন খাবার আজই বাদ দেবেন?

১. রেডমিট মাংস নৈব নৈব চ

রগরগে করে রান্না করা পাঁঠার মাংস দেখলেই জিভে জল এসে যায়। অনেকের বাড়িতে আজও প্রতি রবিবার কষিয়ে পাঁঠার মাংস রান্না হয়।

শুনলে হয়তো কষ্ট হবে, পাঁঠার মাংস বা যে কোনও রেডমিট বেশি পরিমাণে খেলে তার পরিণাম মোটেও ভাল হয় না। রক্তচাপ তো বাড়েই, পাশাপাশি কোলেস্টেরলের মাত্রাও অনিয়ন্ত্রিত হয়ে যায়। তখন হৃদরোগ, স্ট্রোকের ঝুঁকিও বেড়ে যায়।

২. প্রক্রিয়াজাত মাংস

দিনের শুরু ও শেষ যদি পিৎজ়া, বার্গার, বেকনে করে থাকেন, তা হলে আপনি কিন্তু সুরক্ষিত নন। প্রক্রিয়াজাত খাবারে প্রচুর পরিমাণে ‘ট্রান্স ফ্যাট’ থাকে, যা খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধি করে। কোলেস্টেরল বাড়লে তা ধমনীতে পরতে পরতে জমা হতে থাকে। ফলে রক্ত চলাচলের রাস্তাটা বন্ধ হয়ে যায়। শরীরে প্রদাহ বাড়তে থাকে। স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাক হানা দেয় আচমকাই।

৩. প্যাকেটজাত খাবার

মনে রাখবেন, যে কোনও প্যাকেটজাত খাবার সংরক্ষণের জন্য তাতে বেশিমাত্রায় নুন ও রাসায়নিকের ব্যবহার হয়। এই সব রাসায়নিক শরীরের জন্য বিষ। তা ছাড়া বেশিমাত্রায় নুন রক্তচাপ বাড়িয়ে দেয়, যা ধমনী, মস্তিষ্ক ও হৃদযন্ত্রের ক্ষতি করে।

৪. বেশি চিনি দেওয়া পানীয় খেলেই বিপদ

নরম পানীয় কে না পছন্দ করেন? চিকিৎসকেরা বলছেন, নরম পানীয়, প্যাকেটজাত হেলথ ড্রিঙ্কসে এত পরিমাণ চিনি থাকে, যা রক্তে শর্করা ও কোলেস্টরল দুই-ই বাড়িয়ে দেয়। যার ফলে স্ট্রোকের মতো প্রাণঘাতী অসুখের ফাঁদে পড়ার আশঙ্কা বাড়ে। সুস্থ থাকতে হলে, বেশি চিনি দেওয়া খাবার ও পানীয়ের লোভ ছাড়তেই হবে।

৫. মদ্যপান যত নষ্টের গোড়া

নিয়মিত মদ্যপান করলে রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা হু হু করে বাড়তে পারে। রক্তে লিপিডের মাত্রা স্বাভাবিকের গণ্ডি ছাড়িয়ে গেলে তা মস্তিষ্কের রক্তনালির ভিতর জমা হতে পারে। তখনই স্ট্রোকের ফাঁদে পড়ার ঝুঁকি বাড়ে।

You might also like!