Health

10 months ago

Frequent Urination:দিনে ১০ বারের বেশি মূত্র ত্যাগ কিন্তু কোনো জটিল রোগের ইঙ্গিত

ক্লিভল্যান্ড ক্লিনিক বিশ্বাস করে যে দিনে চার থেকে আট বার প্রস্রাব করা আসলে সম্পূর্ণ স্বাভাবিক
ক্লিভল্যান্ড ক্লিনিক বিশ্বাস করে যে দিনে চার থেকে আট বার প্রস্রাব করা আসলে সম্পূর্ণ স্বাভাবিক

 

দুরন্ত বার্তা ডিজিটাল ডেস্কঃ   প্রস্রাব (Urine) শুধু শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থই বর্জন করে না, বরং আপনার স্বাস্থ্য (Health) সম্পর্কেও অনেক কিছু ইঙ্গিত দেয়। প্রস্রাবের রং ও গন্ধ দেখে শরীরে বেড়ে ওঠা অনেক রোগ (Diseases) শনাক্ত করা যায়। এই কারণেই ডাক্তাররা অভ্যন্তরীণ রোগগুলি পরীক্ষা করার জন্য প্রস্রাব পরীক্ষার পরামর্শ দেন। আমাদের দিনে কতবার প্রস্রাব করা উচিত? এই প্রশ্নের উত্তরে, ক্লিভল্যান্ড ক্লিনিক বিশ্বাস করে যে দিনে চার থেকে আট বার প্রস্রাব করা আসলে সম্পূর্ণ স্বাভাবিক। আপনি যদি এর চেয়ে বেশি প্রস্রাব করতে বাথরুমে যান তবে আপনাকে সতর্ক হতে হবে। আপনি যে পরিমাণ জল পান করেন সেই অনুযায়ী প্রস্রাব করালে ঠিক আছে। তবে আপনার যদি অতিরিক্ত প্রস্রাব হয় বা খাওয়ার পরপরই সবসময় প্রস্রাব হয়, তবে এটি কিছু অভ্যন্তরীণ রোগের লক্ষণ হতে পারে, যা উপেক্ষা করা উচিত নয়।

প্রস্রাবের সমস্যা কোথায় দেখা দেয়? বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, কারোর যদি ঘনঘন প্রস্রাব হয় বা কিছু খাওয়া বা পান করার পরপরই টয়লেটে যাওয়ার প্রয়োজন হয়, তাহলে তা কোনও না কোনও রোগের লক্ষণ হতে পারে। এছাড়া প্রস্রাবের সঙ্গে জ্বর হলে, প্রস্রাবের নিয়ন্ত্রণ না থাকলে, পেটে ব্যথা বা অস্বস্তি হলে তা মূত্রনালীর সংক্রমণের (ইউটিআই) লক্ষণ হতে পারে।

১) ডায়াবেটিস: ডায়াবেটিস একটি দীর্ঘস্থায়ী রোগ। আর এই রোগ যে কোনও বয়সের মানুষের যে কোনও সময়ই হতে পারে এবং ঘন ঘন প্রস্রাব হওয়াটাও এই রোগের লক্ষণ।

২) কিডনি বা ইউরেটিক স্টোন: বার বার প্রস্রাব হওয়া কিডনি স্টোনের উপসর্গ হতে পারে। কিডনিতে স্টোন হলে ঘন-ঘন প্রস্রাবের বেগ আসে। তাই এই সমস্যা দেখা দিলে ফেলে না-রেখে সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে। 

৩) ইউটিআই (ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশন): এই সংক্রমণ মহিলাদের মধ্যে বেশ সাধারণ। কিন্তু এই রোগ পুরুষদের মধ্যেও দেখা দিতে পারে। এই সংক্রমণের একটি লক্ষণ হল ঘন ঘন প্রস্রাব। এবং প্রস্রাব করার সময় জ্বালা অনুভব করা। সেই ক্ষেত্রে একবার চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া বাঞ্ছনীয়।


You might also like!