kolkata 3 months ago (16)

Museum Incident - Aftab Ansari's Terrible Memories :জাদুঘরকাণ্ড যেন ফিরিয়ে দিল ২০ বছর আগের আফতাব আনসারির ভয়াবহ স্মৃতি

Museum Incident - Aftab Ansari's Terrible Memories

 

কলকাতা, ৬ আগস্ট : ২০০২ সালের ২২ জানুয়ারি। ভারতীয় জাদুঘর থেকে অনেকটা ঢিলছোঁড়া দূরত্বে কলকাতার আমেরিকান কালচারাল সেন্টারে ঘটেছিল ভয়াবহ আক্রমণ। একটি ইসলামি জঙ্গি হানায় চার জন পুলিশ কনস্টেবল ও একজন বেসরকারি নিরাপত্তা কর্মী নিহত হন এবং ২০ জন লোক আহত হন। কলকাতার আমেরিকান কালচারাল সেন্টারে একটি গ্রন্থাগার, আমেরিকান দূতাবাসের জনসংযোগ কার্যালয়, একটি মুদ্রণ বিভাগ ও একটি সাংস্কৃতিক শাখা অবস্থিত। সকাল ৬টা ১৫ মিনিট নাগাদ দুই জঙ্গি শাল মুড়ি দিয়ে মোটরসাইকেল চেপে আমেরিকান সেন্টার ভবনে প্রবেশের চেষ্টা করে। তারা চেকপয়েন্টে না থেমে একটি একে-৪৭ বন্দুক থেকে পুলিশ কর্মীদের দিকে গুলি ছুঁড়তে শুরু করে। পুলিশেরাও পালটা গুলি চালায়। মৃত চার পুলিশ কর্মী কলকাতা পুলিশের কনস্টেবল। অপর এক মৃত নিরাপত্তা কর্মী বেসরকারি নিরাপত্তা সংস্থা গ্রুপ ফোরের কর্মী। জঙ্গি হানায় মৃত কনস্টেবলরা হলেন পীযূষ সরকার, উজ্জ্বল বর্মণ, সুরেশ হেমব্রম ও অনুপ মণ্ডল। এঁরা কলকাতা শসস্ত্র পুলিশ বাহিনীর পঞ্চম ব্যাটেলিয়নের কর্মী ছিলেন। তীব্র প্রতিক্রিয়া হয় সেই ঘটনার। এই প্রতিবেদক দিনের পর দিন খবরগুলো করেছেন একটি নামী দৈনিকে। দুটি সংগঠন এই হামলার দায় স্বীকার করে।হরকত-উল-জিহাদ-আল-ইসলামি (হুজি) সদস্য ফারহান মালিক হামলার দায় নিয়ে বলেন, এই হামলা “আমেরিকার অশুভ সাম্রাজ্যের” বিরুদ্ধে প্রতিবাদ। অন্যদিকে আসিফ রাজা কম্যান্ডো নামে আর এক ইসলামি জঙ্গি গোষ্ঠীর সদস্যও এই হামলার দায় স্বীকার করেন। কলকাতার বিশিষ্ট জুতো ব্যবসায়ী পার্থপ্রতিম রায়বর্মণের অপহরণ মামলাতেও ফারহান মালিক পুলিশের ‘ওয়ান্টেড’ তালিকাভুক্ত ছিলেন। ভারতীয় জাদুঘর-সংলগ্ন ঘটনার প্রেক্ষিত ভিন্ন। কিন্তু জওহরলাল নেহরু রোডে প্রায় একই পাড়ায় দুটি গুরুত্বপূর্ণ ভবন দুই দশকের ব্যবধানে জুড়ে গেল গুলিকাণ্ডে।

You might also like!