কলকাতা

Mamata Banerjee-"আমাকে যেতে না দিয়ে হিন্দুত্ব অবমাননা করল বিজেপি" : মমতা

রোমে বিশ্ব শান্তি সম্মেলনে আমন্ত্রণ পেয়েছিলেন তিনি, কিন্তু কেন্দ্র তাঁকে অনুমোদন দিচ্ছে না। এ বিষয় বেজায় ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। এ বার বিজেপির (BJP) বিরুদ্ধে হিন্দুত্বের তাস খেললেন। নিজেকে হিন্দু মহিলা পরিচয় দিয়ে কেন্দ্রের উদ্দেশে তিনি সরাসরি প্রশ্ন করলেন, যেখানে অন্যান্য ধর্মের বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে, সেখানে তাঁকে যেতে দেওয়া হল না কেন? এটা কি হিন্দুত্বের অপমান নয়? জোরালো কণ্ঠে এই সওয়ালও দেগে দেন তৃণমূল নেত্রী। শনিবার ভবানীপুর উপনির্বাচনের প্রচারে গিয়ে চেনা ভঙ্গিতে ফের একবার আক্রমণে করেন মমতা। কিন্তু তাঁর বক্তব্যে এ দিন বিশেষভাবে উঠে আসে রোম সফর বাতিল হওয়ার প্রসঙ্গ। মমতা বলেন, “বিশ্ব শান্তির জন্য একটা সম্মেলন ছিল রোমে। ২ মাস আগে ওখান থেকে যোগাযোগ করা হয়েছিল। জার্মান চ্যান্সেলর ওখানে উপস্থিত থাকবেন, ওলি পোপও যাবেন, ইজিপ্টের ইমাম থাকবেন, ইটালির প্রধানমন্ত্রীও হাজির থাকবেন। আর আমাকে যেতে বলা হয়েছিল। ইটালি সরকারও আমাদের বিশেষ অনুমতি দিয়েছিল। কিন্তু আজ কেন্দ্রীয় সরকার থেকে চিঠি এল, যাওয়ার অনুমতিই বাতিল করে দিল।” মমতার সাফ প্রশ্ন, “শান্তির প্রশ্নে যখন এশিয়ার থেকে একমাত্র আমাকেই ভারতের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য বেছে নেওয়া হয়েছিল, তখন আমাকে যেতে দেওয়া হল না কেন?” এরপরই অন্যান্য ধর্মের প্রতিনিধিদের উপস্থিতির প্রসঙ্গ টেনে মমতা তোপ দেগে বলেন, যখন বাকি ধর্মের প্রতিনিধিরা ওই সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন, তখন হিন্দু ধর্মের প্রতিনিধি কেন যাবেন না? “আমার বিদেশ ঘোরার কোনও শখ নেই। কিন্তু এর সঙ্গে দেশের সম্মানও জড়িত। দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ এসেছিল। ওখানে সকল ধর্মের মানুষেরা থাকবেন। আপনারা শুধু মুখে হিন্দুত্বের কথা বলেন। কিন্তু একজন হিন্দু মহিলা হিসেবে আমাকে যেতে দিলেন না কেন? হিন্দু ধর্মের জন্য মুখে মুখে এত কথা”, খোঁচার সুরে বলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। অনুমতি বাতিল হওয়ার কারণ ব্যাখ্যা করে তাঁর আরও কটাক্ষ, “জেলাসি (ঈর্ষা), পুরোটাই জেলাসি।”