আন্তর্জাতিক

Afghanistan- বক্সিংয়ের সাজা মৃত্যু, ঘর ছাড়া আফগান তরুণী

মুখে যা ই বলুক, তালিবান আছে তালিবানের মতোই। মানসিকতার কোনো পরিবর্তন আসেনি জিহাদিদের, সেটার প্রমাণ তারা দিচ্ছে । এবার শোনা গেল আফগানিস্তানের এক মহিলা বক্সারের কথা, যাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়েছিল তালিবান। শেষ পর্যন্ত দেশ ছেড়েছেন তিনি।সিমা রেজাই নামের ওই লাইটওয়েট বক্সার তরুণী জানিয়েছেন, ”আগস্টের মাঝামাঝি তালিবান কাবুল দখল করার পরও আমি কোচের কাছে অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছিলাম। কিন্তু এরপর কিছু লোক তালিবানকে জানিয়ে দেয়, এই এলাকায় এক তরুণী থাকে, যার কোচ পুরুষ। এরপরই আমাকে হাতে লেখা চিঠি দিয়ে হুমকি দেওয়া হয়। তালিবান জানিয়ে দেয়, যদি আমি অনুশীলন চালিয়ে যাই কিংবা আমেরিকায় গিয়ে বক্সিং করি তাহলে আমাকে মেরে ফেলা হবে।”দলের সদস্য রেজাই নাম করা বক্সার। ১৬ বছর বয়সে তিনি বাড়ির অমতেই  অনুশীলন শুরু করেন। তবুও কোচের অধীনে অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছিলেন। কিন্তু এবার তালিবানের হুমকি পাওয়ার পরে দেশ ছেড়েছেন তরুণী। কাতারের উদ্দেশে যাত্রা করেছেন তিনি। তারপর শুরু হবে মার্কিন ভিসার অপেক্ষা। সেটা পেয়ে গেলেই উড়ে যাবেন আমেরিকা। তারপর সেখানেই পেশাদার বক্সিংয়ের কেরিয়ার শুরু করবেন। শনিবারই এক তালিবান মুখপাত্রকে দাবি করতে দেখা গিয়েছে, তারা মোটেই হিংসাত্মক নয়। সেই সঙ্গে ওই ব্যক্তি জানিয়েছে, আফগান নারীদের অধিকার রক্ষাতেও সচেষ্ট তারা। সব মিলিয়ে একটি শান্তিপূর্ণ রাষ্ট্র গড়ার কথাই জানাচ্ছে তালিবান। কিন্তু তাদের কথা ও কাজের মধ্যে বিস্তর ফারাক তা স্পষ্ট হচ্ছে।