রাজ্য

shyamaprasad Mukherjee: গ্রেফতারের পরই অসুস্থ হয়ে পড়লেন প্রাক্তন মন্ত্রী

বাঁকুড়া, ২৩ আগস্টঃ দুর্নীতির অভিযোগে গতকাল গ্রেফতার করা হয়েছে প্রাক্তন মন্ত্রী শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়কে। এরই মধ্যে সোমবার বুকে ব্যথা অনুভব করেন তিনি। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। যদিও সমস্ত রকম পরীক্ষা নিরীক্ষার পর চিকিৎসকরা জানান, জেলেই থাকতে পারেন বিষ্ণুপুরের প্রাক্তন বিধায়ক। তাঁর শরীরে এমন কোনও সমস্যা নেই যে কারণে হাসপাতালে ভর্তি থাকার প্রয়োজন রয়েছে। প্রসঙ্গত, আপাতত ৪ দিনের পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন শ্যামাপ্রসাদ।

গত ৩৪ বছর ধরে বিষ্ণুপুর পুরসভায় চেয়ারম্যান ছিলেন শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়। কখনও থেকেছেন কংগ্রেসের হয়ে, কখনও থেকেছেন তৃণমূলের হয়ে,বিধানসভা ভোটের মুখে যোগ দেন বিজেপিতে। অভিযোগ, সে সময় একাধিক প্রকল্পের টেন্ডার হয়েছিল। কিন্তু সেই প্রকল্পগুলিতে কোনও কাজই হয়নি। মহকুমা শাসকের তরফে তদন্ত শুরু হয়। পরে রিপোর্ট জমা দেয় চিফ ভিজিল্যান্স অফিসার। তদন্তে দুর্নীতির একাধিক তথ্য উঠে আসে। এরপরই বর্ষীয়ান এই নেতাকে গ্রেফতার করা হয় রবিবার।

সূত্রের খবর, এদিন রাত থেকেই বুকে সমস্যা হচ্ছিল তাঁর। সকালের দিকে বুকের বাঁ দিকে ব্যথা অনুভব করেন। বিষয়টি থানায় জানান। এরপরই সোমবার সকালে বিষ্ণুপুর থানা থেকে প্রাক্তন মন্ত্রীকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয় বিষ্ণুপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। সেখানে এমারজেন্সিতে প্রাথমিক চিকিৎসা করানো হয়।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রাক্তন মন্ত্রীর হাই প্রেশার রয়েছে। এতটা ধকলে তা বেড়ে যায়। তবে চিকিৎসকরা জানান, এর জন্য প্রাক্তন মন্ত্রীর হাসপাতালে ভর্তি থাকার কোনও প্রয়োজন নেই। এরপরই ফের বিষ্ণুপুর থানায় ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। 

বিজেপির বাঁকুড়া জ়োনের অবজার্ভার পার্থ কুণ্ডু বলেন, “যতদিন তৃণমূলে ছিলেন, ততদিন তাঁর বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ ছিল না। এখন বিজেপিতে আসার পরই সব অভিযোগ! আসলে সামনে পুরভোট। তৃণমূলের পায়ের তলার মাটি সরে গিয়েছে। তাই তৃণমূল এ সব করছে।”