কলকাতা

Tarun Majumder : তরুণ মজুমদারের অবস্থার আরো অবনতি, রাখা হল ভেন্টিলেশনে

কলকাতা, ২৫ জুন : ভাল নেই বর্ষীয়ান পরিচালক তরুণ মজুমদার, শুক্রবার টানা ৪ ঘন্টা ডায়ালিসিস হলেও কাজ করছেনা কিডনি। ক্রিয়েটিনিনের মাত্রা মাত্র ৭। ব্যহত হচ্ছে শরীরে রক্তশোধনের প্রক্রিয়া। একই সাথে বাড়ছে আচ্ছন্নভাব। শুক্রবার ভেন্টিলেশন সাপোর্ট এড়ানোর যথাসাধ্য চেষ্টা চালান চিকিৎসকেরা। কিন্তু শেষ রক্ষা হলনা। শনিবার তাঁকে রাখতেই হল ভেন্টিলেশনে। চিকিৎসকেরা বলছেন, প্রবীণ এই পরিচালকের অবস্থা স্থিতিশীল হলেও আশঙ্কাজনক। হাসপাতাল সূত্রের শেষ খবর অনুযায়ী জানা যায়, শ্বাস-প্রশ্বাস স্বাভাবিক রাখার জন্য কিংবদন্তি পরিচালককে দেওয়া হচ্ছে টি-পিস সাপোর্ট। এছাড়া হিমোডায়ালাইসিস করতে গেলে রোগীকে বিভিন্ন ধরনের ওষুধ দেওয়ার প্রয়োজন হয়। যেমন, ব্লাড থিনার বা রক্ত পাতলা করার ওষুধ, হরমোনের ওষুধ, ভিটামিন জাতীয় ওষুধ সেসবই দেওয়া হলেও মিলছেনা তেমন সাড়া। ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে মাল্টি অর্গান। প্লেটলেট কম রয়েছে তরুণবাবুর শরীরে। গলার জায়গায় হচ্ছে রক্তক্ষরণ। তাঁর শারীরিক অবস্থা নিয়ে উদ্বিগ্ন চিকিৎসকরা। তাঁর শরীরিক অবস্থা বিশেষ পর্যবেক্ষণে রাখার জন্য গঠন করা হয়েছে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট একটি মেডিক্যাল টিম। যেখানে চেস্ট মেডিসিনের চিকিৎসক হিসেবে রয়েছেন চিকিৎসক সোমনাথ কুণ্ডু, মেডিসিনের চিকিৎসক সৌমিত্র ঘোষ, নেফ্রলজিস্ট অর্পিতা রায়চৌধুরী, কার্ডিওলজিস্ট সরোজ মণ্ডল, নিউরো মেডিসিনের চিকিৎসক বিমান রায়। প্রসঙ্গত, চলতি সপ্তাহের সোমবার কিডনি জনিত সমস্যা নিয়ে এসএসকেএম হাসপাতালে আইসিইউ-তেই ভর্তি হয়েছিলেন ‘দাদার কীর্তি’র স্রষ্টা। কিডনি, ফুসফুসের সমস্যা-সহ একাধিক বার্ধক্যজনিত সমস্যায় ভুগছেন পরিচালক। তাঁর শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন টলিউড।