রাজ্য

Laxman Seth : দিদি-র হয়ে সেবার কাজ করতে উদগ্রীব এককালের দাপুটে নেতা লক্ষ্মণ শেঠ

পূর্ব মেদিনীপুর, ২২ জুন : শোভন চট্টোপাধ্যায় ছাড়াও লক্ষণ শেঠের সাধ জেগেছে তৃণমূলের হয়ে সেবার কাজ করতে। কিন্তু অপেক্ষা করে করে ক্লান্ত এককালের দাপুটে নেতা, তমলুকের প্রাক্তন সিপিএম সাংসদ লক্ষ্মণ শেঠ। এবার তিনি ভাবছেন ‘আপ’-এর পতাকা হাতে তুলে নিতে। বাম, বিজেপি ও কংগ্রেসে ঘুরে এসেছেন লক্ষণ। এবার তৃণমূলে যোগ দিতে চান। অনেক চেষ্টা করেছেন। রাজনীতির মূল স্রোতে ফিরে আসার জন্য এবার ‘দিদির সৈনিক’ হিসেবে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। তবে এই ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন অনেক দিন আগেই। অনেক দিন ধরেই তৃণমূলের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছিলেন তিনি। সম্প্রতি দলে যোগ দেওয়ার জন্য তৃণমূলের কাছে আবেদনও করেছিলেন। তবে ঘাসফুল শিবিরের তরফে এখনও পর্যন্ত তাঁকে ইতিবাচক কোনও উত্তর দেওয়া হয়নি। আবার নেতিবাচক কিছুও বলা হয়নি বলে জানিয়েছেন তিনি। সেই কারণে ওই দলে যোগ দেওয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন। আর সেই দলের মাধ্যমেই নিজের স্বপ্নগুলিকে পূরণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে কিছুতেই শিঁকে ছিঁড়ছে না। ২০০৭ সালে নন্দীগ্রামে শিল্প গড়ার ভাবনা এবং পদক্ষেপ বুমেরাং হয়েছিল লক্ষ্মণের রাজনৈতিক জীবনে। ২০১৪ সালে সিপিএম থেকে বহিষ্কৃত হওয়ার পর নিজের দল ‘ভারত নির্মাণ মঞ্চ’ গড়েছিলেন। পরে বিজেপি-তে যোগ দেন। ২০১৯-এর লোকসভা ভোটের আগে কংগ্রেসে যোগ দিয়ে তমলুক আসনে লড়েছিলেন তিন বারের সাংসদ। কিন্তু জামানত বাঁচাতে পারেননি। এদিকে নন্দীগ্রামে জমি অধিগ্রহণ নিয়েই তৃণমূলের সঙ্গে তাঁর দূরত্ব তৈরি হয়েছিল। যদিও এখন সেই দূরত্ব ভুলে এগিয়ে যেতে চান তিনি। বলেন, "কেউ চিরদিন শত্রু হয়ে থাকতে পারে না। যাঁরা এই তত্ত্ব নিয়ে চলেন তাঁরা গোঁড়া। কোনও পরিবর্তন চান না।" পাশাপাশি তৃণমূলে যোগ দিয়ে নিজের অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে চান বলেও জানিয়েছেন তিনি। তৃণমূল যদি তাঁকে না নেয় তাহলে আম আদমি পার্টিতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রাক্তন এই সাংসদ।